parallax background

হলুদ রঙে আভিজাত্য

By Tasnim Jarin

আভিজাত্য শব্দটির সাথে সাদা, গোল্ডেন, রুবি, রূপালি, কালো কিংবা কপার রঙের সম্পর্ক খুব ভালো হলেও; নীল, সবুজ কিংবা হলুদ রঙও কিন্তু মানিয়ে যায় বেশ ভালোভাবেই। যদিও পুরো বিষয়টি নির্ভর করবে পরিবেশন এবং ব্যক্তিত্ব ফুটিয়ে তোলার মধ্য দিয়ে। যেকোনো রঙই হতে পারে আভিজাত্যের প্রতীক, যদি এর উপস্থাপন ক্ষমতা থাকে দৃঢ়, যার ওপর নির্ভর করেই আপনার স্বপ্নের ঘরটি হয়ে উঠবে প্রাসাদ সমতুল্য। আর এই স্বপ্ন বুননের যাত্রায় এক কথায় বন্ধুত্বের রঙ হিসেবে পরিচিত হলুদ রঙটি হতে পারে নিঃসন্দেহে বিশেষ।

0d2af44ce579951a2bde0e26c4a83189.jpg

হলুদ রঙটির মধ্যে রয়েছে তারুণ্যের ছোঁয়া। সজীবতা এবং আত্মবিশ্বাসের জায়গা করে নেয়া বিশাল রঙের ভান্ডার থেকে হলুদ রঙটি তাই নির্দ্বিধায় বেছে নিতে পারেন। যেকোনো সম্পর্কের শুরুতে হলুদ রঙা একটি ফুল কিন্তু হতে পারে নির্ভরতার দারুণ এক উপহার। আর তাই হয়তো হলুদ রঙা গোলাপ, বর্ষার কদমফুল, কাঠগোলাপের মায়া অথবা সূর্যমুখীর সতেজতা এতটাই বিশেষ, যা বন্ধুত্ব গড়তে সাহায্য করে হোক সেটা কোনও মানুষের সাথে নতুবা প্রকৃতির ভালোবাসায়।

81P0LNhcJBL._AC_SX466_.jpg

হলুদ রঙটির অনুপ্রেরণা কিন্তু পাওয়া যায় প্রকৃতির মাঝেও। গ্রীষ্ম, বর্ষা, শরৎ, হেমন্ত, শীত এবং বসন্ত; প্রতিটি ঋতু মাঝেই আপনি খুঁজে পাবেন হলুদ রঙের কোন না কোন শেড। অন্যান্য রঙের মতো হলুদ রঙটিকে বিশ্লেষণ করলে দেখা যায় মৌলিক ঘরানার রঙের মধ্যে কিন্তু এই রঙটি পড়ছে না। হলুদ রঙটি মূলত কমলা আর সবুজ রঙের মাঝামাঝি রঙ। যে রঙটিকে আমরা খুঁজে পাই হেমন্তের পাতার রঙের মাঝে, পরিপক্ক ভুট্টার রঙে, ড্যাফোডিল ফুলে, অদ্ভুত সুন্দর সূর্যমুখী ফুলে, ডিমের কুসুমে, পরিপক্ক কলার খোসার রঙে, পাকা লেবু এবং সূর্যের আলোয়।  

yellow-colour-in-wall.jpg

প্রকৃতির এই বিশেষ রঙ যদি এঁকে দিতে চান অন্দরমহলের দেয়াল জুড়েও, তবে জেনে নিন এ রঙের বিভিন্ন শেড সম্পর্কে। হলুদ রঙটির রয়েছে বিভিন্ন ধরনের শেড, যার মধ্য থেকে আপনি বেছে নিতে পারেন আপনার পছন্দের শেডটি। বাদামী ঘরানার এই রঙটির রয়েছে হালকা এবং গাঢ় বিভিন্ন ধরনের শেড। খুব পরিচিত বাসন্তী, হালকা হলুদ, সরষে হলুদ রঙের পাশাপাশি হলুদ রঙটির রয়েছে এমন কিছু শেড, যেগুলো সম্পর্কে হয়তো আপনি নাও জেনে থাকতে পারেন। এ শেডগুলো ছাড়াও হলুদ রঙটির রয়েছে গোল্ড, লেমন, ক্যানারি, ড্যাফোডিল, বাটার, মাস্টার্ড, ফায়ার, বাটারস্কচ, হানি, ব্লন্ড এবং পাইনঅ্যাপল ইত্যাদি শেড। ফুল এবং খাবারের নামে পরিচিত এ শেডগুলো হলুদ রঙেরই বিভিন্ন রূপ মাত্র।

paint-color-ideas-for-your-home-19.jpg

সৌন্দর্য আর উজ্জ্বলতায় যেন ভিন্নমাত্রা ধারণ করে হলুদ রঙটি, তা যেকোনো রূপেই হোক না কেন। হলুদ রঙটি দেখতে এতটাই প্রাণবন্ত দেখায় যে এর বিপরীতে যেকোনো রঙই যেন মানিয়ে যায়। যেমন ধরুন ড্রইং রুমের একটি দেয়ালে যদি ক্যানারি, মাস্টার্ড, বাটারস্কচ অথবা পাইনঅ্যাপল শেডের হলুদ রঙটি থাকে, আর বাকি দেয়ালগুলোতে সাদা। তবে হলুদ রঙের দেয়ালের সামনে আপনি গোলাপি, নীল বা সবুজ যেকোনো রঙের সোফা সেট, আর্ম চেয়ার বা কর্নার দোলনা রাখেন দেখতে অসাধারণ লাগবে। আর আধুনিক সময়ে এই ধরনের ডেকোরেশন কিন্তু বেশ ট্রেন্ডি। অর্থাৎ, দেয়ালের রঙের বিপরীতে উজ্জ্বল রঙের কোনও ফার্নিচার দিয়ে নির্দিষ্ট কোন রুম সাজানো। আর এর সাথে রুমের সৌন্দর্য আরও দ্বিগুণ হবে যদি কয়েকটি পেইন্টিং থাকে দেয়াল জুড়ে।      

1fb703a2623f0cedcc674e649d7a500d.jpg

হলুদ রঙটির সাথে অ্যাশ বা ধূসর রঙের কম্বিনেশনটা কিন্তু বেশ মানানসই। যেমন ধরুন লিভিং রুমের দেয়ালে হলুদের পাশে ধূসর রঙের শেড দিয়ে রঙ করে নিলেন। এবার যে অংশে যেই রঙ তার বিপরীত রঙের ফার্নিচার দিয়ে রুমটি সাজালেন। আর দুইটি রঙের মধ্যে ব্যালান্স করতে সাদা রঙের নেটের পর্দা বা ল্যাম্প বা কিছু ফুল বেছে নিলেন, এক কথায় সেরা! কর্ণ, ড্যাফোডিল, বাটার, কিংবা হানি যেকোনো শেডই দারুণ দেখাবে।   

6335e4866253c4a407a4a524d2825220.jpg

বেড রুমের দেয়ালের জন্য যদি হলুদ রঙ আপনি না চান, তবুও কিন্তু হলুদের ছোঁয়া ভালোভাবেই রাখতে পারবেন। কীভাবে? ধরুন দেয়ালের রঙটি সাদা বা অন্য যেকোনো রঙের। সেক্ষেত্রে রুমের কর্নারে একটি হলুদ রঙের আর্ম চেয়ার রেখে দিন আর তার পাশের টেবিলে ছোট কোনও ইনডোর প্ল্যান্টস এবং কিছু বই। রুমের জন্য বেছে নিন ছোট বা মাঝারি আকারের হলুদ রঙের ফ্রেম করা আয়না, যা দেয়ালের দিকে আপনার দৃষ্টি নিয়ে যেতে বাধ্য করবেই।

kids-bedroom-design-with-grey-coloured-wardrobe-and-attached-study-unit.jpg

হলুদ এবং ধূসর রঙের কম্বিনেশন কিন্তু স্টাডি রুম এবং বাচ্চাদের রুমের জন্যও বেশ মানাসই। হলুদ রঙটি যেহেতু অনেক প্রাণবন্ত, তাই রুম জুড়ে কোনও ধরনের মলিন ভাব থাকবে না, বরং রুম অনেক উজ্জ্বল দেখাবে। তবে প্রয়োজন নেই পুরো দেয়ালে একই রঙ দেয়ার। এ ধরনের উজ্জ্বল রঙ সাধারণত নির্দিষ্ট একটি দেয়ালে বা কর্নারে করলেও কিন্তু বেশ আলাদা দেখায়।

কিচেন বা ডাইনিং রুমের ক্ষেত্রে ক্যাবিনেট বা টেবিলের রঙটা হতে পারে ড্যাফোডিল, বাটারস্কচ কিংবা পাইনঅ্যাপল শেডের। এই শেডগুলো যেমন খুব একটা চোখে লাগবে না, তেমনি পরিবেশটা উজ্জ্বল দেখাবে নিশ্চিত। আরও শৈল্পিক করে তুলতে ডাইনিং এর চেয়ারগুলো হতে পারে নীল বা লাল রঙের। দেখলে মনে হবে যেন একটা স্টুডিওতে চলে এসেছেন। আর সাথে পাতাবাহার গাছ এবং বেতের কিছু ডেকোরেশনের জিনিস রাখলে তো আর কথাই নেই!

বলা হয়ে থাকে, হঠাৎ করে যদি রঙ বাছাই করার ক্ষেত্রে দ্বিধায় পড়ে যান, তবে চোখ বন্ধ করে রঙের ঝুলি থেকে হলুদ রঙটি তুলে নিতে পারেন। কেননা, হলুদ রঙটি আপনাকে ভুল প্রমাণ করবে না। বরং, আপনার এই সিদ্ধান্তটি ঠিক বলেই বিবেচিত হবে। কেননা, পোশাক থেকে শুরু করে ঘর সাজানোতে তারুণ্যের ছোঁয়া কিন্তু আমাদের শরীর এবং মন দুটোকেই জীবন্ত রাখতে সহায়তা করে। তাই রঙ বাছাইয়ের ক্ষেত্রে কোন প্রকার দ্বিধা ছাড়াই বেছে নিতে পারেন প্রাণবন্ত হলুদ রঙটি, যা আপনার ঘরে এনে দিবে আভিজাত্যের ছোঁয়া।  

  •  
  •  
  •  
  •   

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *