parallax background

ঘরের সিলিং-এ তারার আকাশ

By Tasnim Jarin

ধরুন এমন একটি মুহূর্তের কথা যখন আপনার চোখের সামনে ভাসছে হাজারো মিটিমিটি তারার রাতের আকাশ। আপনি তাকিয়ে আছেন আর ভাবছেন বিধাতার অসীম সৃষ্টির কথা, পৃথিবী ও মহাকাশের কথা। হাজারো তারার মেলায় গুনতে গিয়ে আপনিও যেন বারবার হারিয়ে যাচ্ছেন। ভাবছেন রাতের আকাশ জুড়ে থাকা এত সুন্দর দৃশ্য যেন বিধাতার আঁকা কোন চিত্রপট।

রাতের আকাশের এই সৌন্দর্য মনভরে উপভোগ করার জন্য শহর থেকে দূরে কোথাও, পাহাড়ের উপরে কিংবা সমুদ্রের তীর ঘেঁষে কোন জায়গায় সময় কাটানোর সুযোগ এখন আর তেমন হচ্ছে না বললেই চলে। মহামারীর এই সময়ে আমরা ঘরবন্দি হয়ে সময় কাটাচ্ছি বেশ অনেকটা সময় ধরে। প্রতিদিনের নিয়মে চলছে আমাদের জীবন। যেখানে কখনো সবকিছুকে ভীষণ একঘেয়েমি মনে হয়, আবার কখনো কখনো চার দেয়ালের এই বন্দি দশায় আমরা বেশ হতাশও হয়ে পড়ছি। তবে কঠিন এ সময়টাকে যেহেতু সুস্থতার সাথে অতিক্রম করতে হবে, তাই হতাশা কিংবা বিরক্তি যাই লাগুক না কেন, এখন ঘরে থাকা, পরিবারের সাথে সময় কাটানো এবং নিজের মতো করে ঘরের দেয়ালে মুহূর্তগুলোকে ধরে রাখার ছোট ছোট অভ্যাসই কঠিন এই সময়টাকে আরও সহজ করে তুলবে। আর তাই ঘাসের উপর শুয়ে রাতের আকাশ দেখার সুযোগ সরাসরি না হলেও, ঘরের দেয়ালে এবং সিলিং-এ কিন্তু এঁকে নেয়া যায় মহাকাশ, গ্রহ-উপগ্রহ কিংবা তারা ভরা রাতের আকাশ। দেখে মনে হবে, এ যেন ভ্যান গখ এর স্ট্যারি নাইট এরই এক গল্প!

Chandrakabbo.jpg
চন্দ্রকাব্য ডিজাইন

ঘরের দেয়ালে বিভিন্ন রঙ দিয়ে করা পেইন্ট যেমন আমাদের ব্যক্তিত্বের সাথে মিলে যায়, তেমনি ঘরের প্রতিটি কোণে যেন ছড়িয়ে থাকে আমাদের সৌখিনতা এবং ভালোলাগার বিষয়গুলো। ঠিক তেমনি যারা রাতের তারা ভরা আকাশ দেখতে পছন্দ করেন, তারা কিন্তু চাইলেই এবার তারার আকাশের আদলে নিজের ঘরের সিলিং বা দেয়ালটাও পেইন্ট করে নিতে পারেন। আর এ জন্য বেছে নিতে পারেন বার্জারের দারুণ এই চন্দ্রকাব্য ডিজাইনটি।   

সাধারণত বাসার বাচ্চারা তাদের রুমের জন্য একটু ভিন্ন ডিজাইনের আবদার করে থাকে। যেমন ধরুন সাগরের জলে মাছের ছবি, দেয়াল জুড়ে পাখি, বিভিন্ন কার্টুন ক্যারেক্টার ইত্যাদি। আর এসবের সাথে গ্যালাক্সি, গ্রহ-উপগ্রহ বা তারার আকাশের ডিজাইনও কিন্তু বাচ্চাদের কাছে বেশ পছন্দ হবে। বিশেষ করে যারা সায়েন্টিফিক বিষয় নিয়ে অনেক ইন্টারেস্টেড থাকে, তাদের জন্য সিলিং কিংবা ঘরের দেয়ালে করা এই পেইন্টিং হবে আকর্ষণের অন্যতম বিষয়।

Space.jpg
স্পেস ডিজাইন

শুধু যে বাচ্চাদের রুমের জন্যই এই পেইন্ট দারুণ হবে, তা কিন্তু নয়। বাসার স্টাডি রুমের দেয়ালের জন্যও বিভিন্ন গ্রহ-উপগ্রহের ডিজাইন পেইন্ট করে নিতে পারেন। যেমন- স্টাডি রুমের দেয়ালে বার্জারের স্পেস ডিজাইনটি করতে পারেন। আর যদি সিলিং-এ এই ইল্যুশন করাতে চান তবে সিলিং বরাবর কয়েকটি হালকা আলোর লাইট বিশেষ করে নীল বা সবুজ ধরনের হালকা লাইটের ব্যবস্থা করতে হবে। এতে করে রাতের অন্ধকারে যখন রুমের আলো জ্বালিয়ে রাখবেন তখন পেইন্ট করে নেয়া তারাগুলো আপনাকে নিয়ে যাবে ভাবনার এক জগতে। এক্ষেত্রে দেয়ালেও লাইটের ব্যবস্থা করতে হবে ঠিক মতো। এছাড়া ফোকাস লাইট লাগানো যাবে এমন দেয়ালে ইল্যুশন করাতে পারলে তা দেখতে মনে হবে যেন সত্যিকারের তারা ঝলমলে বিশাল আকাশ।  

IMG_27241.jpg

রাতের আকাশের রঙ আনতে যেহেতু দেয়ালে গাঢ় নীল রঙের ব্যবহার করা হবে, তাই রুমের অন্যান্য দেয়ালের জন্য ক্রিম, অফ হোয়াইট ধরনের রঙ নির্বাচন করতে পারেন। খুব হালকা রঙ যেমন সাদা বা অ্যাশ বা নিয়ন ধরনের খুব হালকা কোন রঙের ব্যবহার এ ধরনের রুমে খুব একটা মানাবে না। তাই এই রঙগুলো এড়িয়ে চলতে পারলেই ভালো হবে।    

অন্যদিকে এ ধরনের থিমের দেয়ালে কিন্তু প্ল্যান্ট বা শেলফের ব্যবস্থা করা যাবে না। খুব ভালো হয়, যদি আপনি দেয়ালের সামনে কিছু না রাখেন। তবে ল্যাম্প রাখতে পারবেন। যদি দেয়াল বড় হয়, তবে দেয়ালের দুই কর্নারে স্ট্যান্ড ল্যাম্প রাখতে পারেন। নিয়ন আলোয় গ্যালাক্সি বা স্পেস ডিজাইন যেন আরও বেশি আর্টিস্টিক হয়ে উঠবে। আর এর সাথে রুমে টেলিস্কোপ, স্পেসশিপ এর শোপিস রাখতে পারেন, সাথে রুম সাজাতে পারেন ছোটো ছোটো তারার লাইটস দিয়ে। পেইন্ট এর সাথে পুরো রুমের ডেকোরেশনও করা হয়ে যাবে।    

GalaxyGlow.jpg
গ্যালাক্সি গ্লো

তাই আকাশ দেখতে যারা পছন্দ করেন, বিশেষ করে রাতের তারা ভরা আকাশ, নক্ষত্রমালা কিংবা মহাকাশ বা স্পেস নিয়ে যাদের আগ্রহ অনেক। তারা সরাসরি স্পেসে যাওয়ার সুযোগ না পেলেও নিজের ঘরের দেয়ালই এখন ডিজাইন করে নিতে পারেন সৌরজগতের আদলে। যেখানে পৃথিবী থেকে শুরু করে চাঁদ, তারা সব কিছুই যেন থাকবে আপনার প্রিয় ঘরের দেয়াল জুড়ে।

আর খুব সহজে ঘরের দেয়ালে দারুণ এই ডিজাইনগুলো আপনি করতে পারবেন বার্জার এক্সপেরিয়েন্স জোন থেকে। ঘরের দেয়াল রাঙাতে তাই কোন ধরনের চিন্তা ছাড়াই আপনি নির্ভর করতে পারেন বার্জার এক্সপেরিয়েন্স জোন এর সার্ভিসিং টিমের উপর। গ্যালাক্সি গ্লো, চন্দ্রকাব্য বা স্পেসের মতো আরও অনেক ইউনিক ডিজাইনে ঘরকে আকর্ষণীয় করে তুলতে আজই যোগাযোগ করুন বার্জার এক্সপেরিয়েন্স জোন টিমের সাথে। বার্জার এক্সপেরিয়েন্স জোনের সাথে নিশ্চিন্তে বাড়ি রাঙাতে ফ্রি কল করুন হটলাইন নাম্বারে: ০৮০০০-১২৩৪৫৬।

  •  
  •  
  •  
  •   

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *