parallax background

বাক্সে বাক্সে বন্দী উপহার

By Tamanna Islam

প্রিয়জনকে উপহার দিতে সবাই ভালবাসে। সেই উপহারটা বেশি আকর্ষণীয় হয় যদি তাতে নিজের হাতের ছোঁয়া থাকে। কিন্তু কি করে স্পেশাল করা যায় সেটা অনেকেই ভেবে পান না। কি করা যায়? নিজের হাতেয় বানিয়ে ফেলুন গিফট বক্স। বাজারে বিভিন্ন ধরণের গিফট বক্স পাওয়া গেলেও সেগুলো কিনতে বাড়তি টাকা গুনতে হয় আর নিজস্বতাও থাকে না। কিন্তু আপনি চাইলেই হাতের কাছে যা আছে তা দিয়েই অনেক সুন্দর গিফট বক্স বানিয়ে ফেলতে পারেন। তাই আজকে আলোচনা করবো সহজ কিছু গিফট বক্স আইডিয়া নিয়ে।  

যা যা লাগবে- টিস্যু রোল, কার্ড বোর্ড, ফেব্রিক গ্লু, প্রিন্টেড পেপার, রঙ, তুলি, রিবন ও কেঁচি। টিস্যু শেষ হয়ে গেলে আমরা রোল টা ফেলেই দেই। কিন্তু ফেলে না দিয়ে এই রোল ব্যবহার করে বানিয়ে নিতে পারেন অরনামেন্টস গিফট বক্স। এই বক্স তৈরি করতে দুই সাইজের রোল লাগবে। প্রথমেই একটু ছোট রোলটা আপনার বক্স যতটুকু ছোট চান সেই আকারে কেটে নিন। এরপর বড় রোলটি বক্সের ঢাকনার আকারে কেটে নিন। এখন কার্ড বোর্ড কেটে রোলের তলানি বন্ধ করে দিন। এরপর প্রিন্টেড পেপার আঠা দিয়ে লাগিয়ে নিন। এরপর ওপরে রিবন দিয়ে বো বানিয়ে আঠা দিয়ে আটকে দিন অথবা স্টোন বসিয়ে নিন। এইতো খুব সহজেই হয়ে গেলো সুন্দর একটি গিফট বক্স।

একই রোল ব্যবহার করে আরও একটি সহজ উপায়ে বানিয়ে নিতে পারেন আরেক ধরণের গিফট বক্স। এর জন্য প্রথমেই রোল গুলোকে কালার পেপারে র‍্যাপ করে গ্লু দিয়ে আটকে নিন। এরপর দুপাশে চাপ দিয়ে বাইরের অংশ ভেতরে ঢুকিয়ে মুখ বন্ধ করে দিন। একপাশ গ্লু দিয়ে আটকে ফেলুন ওপর পাশ গিফট ঢোকানোর জন্য খোলা রাখুন। এরপর ডেকোরেশনের জন্য নিজের পছন্দমত জিনিস যেমন- পার্ল, স্টোন, পমপম, রিবন ইত্যাদি বসিয়ে নিতে পারেন।

এখন আসি আরেক ধরণের গিফট বক্স আইডিয়া তে। কার্ড বোর্ড ফোল্ড করে বক্সের আকৃতি করে গ্লু দিয়ে লাগিয়ে নিন। এরপর বক্স গুলো পছন্দমত রঙে কালার করে নিন। আরেকটা কাড বোর্ড কেটে বক্সের ঢাকনা বানিয়ে নিন। কনট্রাস্ট করে ঢাকনাতে ভিন্ন রঙ ব্যবহার করুন। শুকানোর পর রিবন দিয়ে ডেকোরেট করে নিন।

বক্স কিভাবে বানাতে পারেন তা তো গেলো কিন্তু তার ভেতরে কি গিফট দেওয়া যায় সেটাও কিন্তু চিন্তার বিষয়। বেস্ট ফ্রেন্ডের জন্মদিনে একটু স্পেশাল গিফট দিতে নিজের তৈরি করা বক্সে বন্ধু প্রিয় জিনিসগুলো সুন্দর করে বক্সে গুছিয়ে দিন।

তার আগে একটা রঙ থিম হিসেবে সেট করে নিন। সেটা হতে পারে বন্ধুর প্রিয় রঙ। বাজারে অনেক ধরণের রঙিন কাগজ পাওয়া যায়।

পছন্দের রঙের কাগজ নিন। কাগজগুলো রিবনের মত লম্বা করে কেটে বক্সে বিছিয়ে দিন। এরপর এক এক করে গিফট গুলো সাজান। সবশেষে কার্ডে অথবা স্টিকি নোটসে সুন্দর কিছু বার্তা বাক্সবন্দি করে উপহার দিন। আপনার বন্ধুর এটি পছন্দ না হয়ে উপায় নেই। নিজের ভালবাসার ছোঁয়া রয়েছে যে এতে।


আপনার জীবনের স্পেশাল মানুষের জন্য গিফট বক্স সাজিয়ে নিন একটু ভিন্নভাবে। পছন্দের গিফটের সাথে নিজেদের প্রিয় মুহূর্তের কিছু ছবি বক্সের গায়ে আঠা দিয়ে লাগিয়ে কিছু সুন্দর বার্তা লিখে দিন। এর থেকে ভালো উপহার কখনো হতেই পারে না।

এছাড়াও বানিয়ে ফেলতে পারেন সারপ্রাইজ বক্স। ভাবছেন সারপ্রাইজ বক্স আবার কি জিনিস! এই বক্সের প্রতি পরতে পরতে থাকবে সারপ্রাইজ। এটি তৈরি করতে যতগুলো লেয়ার তৈরি করতে চান ততগুলো কার্ড বোর্ড প্লাস শেইপে কেটে নিন বড় থেকে ছোট সাইজে। এরপর গ্লু দিয়ে একটার ওপর আরেকটা বসিয়ে দিন। এখন প্রতি লেয়ারের এপাশ ওপাশ ভরে দিন প্রিয় মুহূর্তের ছবি আর লেখা দিয়ে। এখন বক্সের আকৃতি অনুযায়ী ঢাকনা বানিয়ে নিন কার্ড বোর্ড দিয়েই। ঢাকনা আটকে দেখুন কি চমৎকার বক্সের আকৃতি হয়ে গেলো। এই উপহার যে পাবে তার খুশি দেখার মত হবে।

অনেক তো বক্সের আইডিয়া দিলাম এবার একটু আউট অব দ্যা বক্স ভাবা যাক। মানে বক্স ছাড়াও যে আমরা উপহার দিতে পারি তা নিয়ে দিতে চাই সামান্য কিছু ধারণা। এই ধরুন আপনার একজন কাছের মানুষ সে খেতে খুব ভালোবাসে তাকে কি উপহার দেওয়া যায়? হ্যাঁ ঠিক ধরেছেন তার পছন্দের খাবারের উপহার দেওয়া থেকে ভালো কিছু আর হবে না। তার জন্য আপনার লাগবে একটা ঝুড়ি। পছন্দের খাবার আর চকোলেটস কালার পেপারে র‍্যাপ করে ঝুড়িতে সুন্দর করে সাজিয়ে দিন। ব্যস চমৎকার দেখাবে আর উপহারও হবে দারুণ।

উপহার যেমন আমরা পেতে পছন্দ করি তেমনি দিতেও ভালোবাসি। বাজার থেকে তো কতকিছুই কিনে দেওয়া যায় কিন্তু তাতে সেই ভালোবাসা থাকে কই! আর তাই একটু মাথা খাটালেই উপহারের সাথে একটু ভালোবাসা মিশিয়ে করে দিতে পারেন খুশি ডাবল।

  •  
  •  
  •  
  •   

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *